নিজস্ব প্রতিবেদক, 16 February-2017, 07:20:40pm

সরকারি চাকরিজীবী যারা জেলা উপজেলা পর্যায়ে রয়েছেন তারা ১০ লাখ টাকা এবং বিভাগীয় পর্যায়ে যারা রয়েছেন তারা সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা গৃহনির্মাণ ঋণ সুবিধা পাবেন। এ ঋণের সুদের হার হবে ৫ শতাংশ। বর্তমানে ১০ শতাংশ সুদে এই ঋণের পরিমাণ এক লাখ ২০ হাজার টাকা নির্ধারিত। অর্থমন্ত্রণালয় সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব মাহবুব আহমেদ বলেন, ঋণের পরিমাণ ও সুদহার ঠিক করার জন্য অর্থ বিভাগের একজন অতিরিক্ত সচিবকে প্রধান করে একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। ওই কমিটি আলাপ আলোচনা করে যে প্রস্তাব দেবে, সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেবে সরকার।

সূত্র জানায়, অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব এ. আর. এম. নাজমুজ ছাকিবকে এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে। সম্প্রতি অর্থমন্ত্রণালয়ে এ কমিটি একটি বৈঠক করেছে।বৈঠকের কার্যবিবরণীতে বলা হয়েছে, বর্তমান নির্ধারিত গৃহনির্মাণ ঋণ বাবদ ১ লাখ ২০ হাজার থেকে যৌক্তিকভাবে বাড়িয়ে জেলা উপজেলাসহ মাঠ পর্যায়ে কর্মরত কর্মচারীদের ১০ লাখ টাকা করা হয়।এতে ওই পর্যায়ের একজন সরকারি কর্মচারীর জীবনে গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন আসতে পারে।

একইভাবে বিভাগীয় শহর এবং মহানগরীগুলোতে বসবাসকারী কর্মকর্তা/কর্মচারীদের গৃহনির্মাণ ঋণের বিষয়টি যৌক্তিকভাবে নির্ধারণ করাও এখন সময়ের দাবি। বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকার করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। বৈঠক সূত্র বলছে, এটি বাস্তবায়িত হলে কেবলমাত্র সরকারি কর্মচারীরাই উপকৃত হবে এমনটি নয় বরং এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট আবাসন ও আর্থিক খাতেও সুদূরপ্রসারী ইতিবাচক প্রভাব পড়বে। এ ঋণে সুদহার হবে ৫ শতাংশ।

এ বিষয়ে রিয়েল এস্টেট এন্ড হাউজিং এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (রিহ্যাব) সহ-সভাপতি লিয়াকত আলী ভূঁইয়া  বলেন, সরকারের এ ধরনের উদ্যোগকে স্বাগত জানান তারা। তবে এর সঙ্গে স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য অল্প সুদে গৃহঋণ দেয়ারও আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, ২০০৯ সালে স্বল্প আয়ের মানুষের জন্য একটি তহবিল গঠন করেছিল সরকার। কিন্তু পরবর্তীতে সেটা স্থগিত করা হয়েছে। ওই তহবিলটি পুনরায় চালুর আহ্বান জানান তিনি। কার্যবিবরণীতে আরও বলা হয়, মূল বেতনের তিন ভাগের এক ভাগের বেশি কর্তন করা যৌক্তিক হবেনা। তবে এখন যেহেতু ৫০ শতাংশ পেনশন গ্রহণের বাধ্যবাধকতা পুনঃপ্রবর্তন করা হয়েছে, সেহেতু গ্র্যাচুইটির একটি নিদিষ্ট অংশকে ঋণ পরিশোধের ক্ষেত্রে বিবেচনায় নিয়ে ঋণের সিলিং নির্ধারণ করা যেতে পারে। এছাড়া নবীন কর্মকর্তা/কর্মচারীদের জন্য গৃহনির্মাণ ঋণ সুবিধার আওতায় চাকরীর শুরুতেই একটি বাসস্থানের সংস্থান করা সম্ভব হলে সরকারি চাকুরীতে মেধাবীরা আকৃষ্ট হবেন।

বৈঠক সুত্র জানায়, বিষয়টি চূড়ান্ত করতে মন্ত্রিসভার চাপ রয়েছে। তাই এ সংশ্লিষ্ট কমিটি খুব দ্রুত আরও বৈঠক করে প্র্রথম বৈঠকের কার্যবিবরণীর আলোকেই গৃহঋণের বিষয়টি চূড়ান্ত করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে পাঠাবে। এমপিওভুক্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাদের এ সুযোগের আওতায় আনা যায় কিনা সে বিষয়টিও ভাবা হচ্ছে। উল্লেখ্য, বর্তমানে সরকারি চাকরিজীবীদের সংখ্যা প্রায় ২১ লাখ। এর মধ্যে স্বায়ত্তশাসিত, আধা স্বায়ত্তশাসিতসহ এমপিওভুক্ত শিক্ষকের সংখ্যা সাত লাখ।




এই বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মিয়ানমারে সহিংসতার অবসানে যুক্তরাজ্যের উদ্যোগ

মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর সহিংসতার অবসানে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের অনুরোধ

যারা গণহত্যা দিবসপালন করে না, তারা স্বাধীনতাও চায় না

প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, যারা গণহত্যা দিবস পালন করে না, তারা জনগণের কল্যাণ চায় না, স্বাধীনতা চায় না।

সিলেটের জঙ্গি আস্তানায় প্যারা কমান্ডো অভিযান : ৪ জঙ্গি নিহত

সিলেটের শিবাবাড়িতে জঙ্গি আস্তানা 'আতিয়া মহলে' সেনাবাহিনীর প্যারা কমান্ডো অভিযান 'অপারেশন টোয়াইলাইটে'

উন্নয়নের জন্য বাংলাদেশ কারো ওপর নির্ভরশীল নয় : প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী আজ দ্ব্যর্থহীন কণ্ঠে ঘোষণা করেছেন, বাংলাদেশ একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্র হিসেবে

খালেদা জিয়ার নাইকো দুর্নীতি মামলা : নিম্ন আদালতে চলবে

খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে হাইকোর্টের দেয়া আদেশ বাতিল

উচ্চশিক্ষার প্রসারে সরকার নিরলসভাবে কাজ করছে: প্রধানমন্ত্রী

অনলাইন রিপোর্টার: আইনের যথাযথ প্রয়োগ ঘটিয়ে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত

মুফতি হান্নানের রিভিউ খারিজের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ

সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত

২৫ মার্চকে ‘গণহত্যা দিবস’ ঘোষণা করল মন্ত্রিসভা

২৫ মার্চ জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে ‘গণহত্যা দিবস’ ঘোষণার প্রস্তাব অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

চট্টগ্রামে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে দু’টি বাড়ি ঘিরে চলছে অভিযান

জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে নগরীর আকবর শাহ থানার কর্নেল হাট সিডিএ এক নম্বর সড়কের একটি বাড়ি ও উত্তর কাট্টলি

মাদারীপুর ও শরীয়তপুরে হবে তাঁতপল্লি : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

বর্তমান সরকার তাঁত ও ক্ষুদ্র কুটির শিল্পে ব্যাপক অবদান রাখছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী : সমাধিতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৭তম জন্মবার্ষিকীতে তার সমাধিসৌধে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন

আশকোনায় প্রস্তাবিত র‍্যাব সদর দপ্তরে আত্মঘাতী হামলা : নিহত ১

রাজধানীর আশকোনায় হাজি ক্যাম্পের পাশে প্রস্তাবিত র‍্যাব সদর দপ্তরে আত্মঘাতী হামলা